অদ্ভুতুড়ে সাজপোশাকে বিশ্বের তারকারা

করেছে Shaila Hasan

শায়লা জাহানঃ

সাল ২০১৯, মেট গালা ইভেন্টের পর্দা উন্মোচিত হলো। পুরো নেট দুনিয়ায় এই ইভেন্টে উপস্থিত বলি-অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার অদ্ভূত সাজপোশাকের ছবি ছড়িয়ে পড়ে। দিন দিন আপগ্রেড হওয়া ফ্যাশন সেন্স নিয়ে সকলের প্রশংসা কুড়ানো এই জনপ্রিয় তারকার অদ্ভুতুড়ে অবতার দেখে সকলের চোখ ছানাবড়া হয়ে যায়। শুধু প্রিয়াঙ্কা চোপড়া নয়, ফ্যাশন শো’র এই আসরে লেডি গাগা, কেটি পেরি, কিম কার্দেশিয়ান সহ বিশ্বের নামকরা সব তারকারা একে একে হাজির হয়েছিলো এমনই সাজে। তাদের সাজ পোশাক দেখে মনে হচ্ছে যেমন খুশি তেমন সাজো’র প্রতিযোগিতা চলছে যেন। কি এই মেট গালা? আর কেনইবা তাদের এই অদ্ভূত দর্শন? সবকিছুই জানবো আজ।

আর আট-দশটা ফ্যাশন শো থেকে ভিন্ন, মেট গালা বেশ অসামান্য এক শো। ফ্যাশন জগতের অস্কারের সমতূল্য, ইভেন্টটি সর্বদা এর থিম এবং পোশাকের জন্য সবাইকে অবাক করে দেয়। ১৯৪৮ সাল থেকে প্রতিষ্ঠিত হওয়া মেট গালা প্রথম কয়েক দশক ধরে নিউ ইয়র্ক দাতব্য প্রতিষ্ঠানের জন্য অনুষ্ঠিত অনেক বার্ষিক সুবিধার মধ্যে একটি ছিল। পরবর্তীতে ১৯৯৫ সাল থেকে অ্যানা উইনটর দ্বারা সংগঠিত এবং সভাপতিত্ব করা, মেট গালা বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে বিশিষ্ট ও একচেটিয়া সামাজিক অনুষ্ঠান হিসেবে পরিণত হয়েছে। এটি নিউ ইয়র্ক সিটির সবচেয়ে বড় তহবিল সংগ্রহের মধ্যে একটি। ২০১৩ সালে ৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, তার পরের বছর ১২ মিলিয়ন এবং ২০২২ সালে রেকর্ড ১৭.৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সগ্রহ করা হয়েছে। মেট গালা বা মেট বল, যাকে আনুষ্ঠানিকভাবে কস্টিউম ইন্সটিউট গালা বা কস্টিউম ইনস্টিটিউট বেনিফিট বলা হয়; প্রতি বছর মে মাসের প্রথম সোমবার নিউ ইয়র্ক সিটির মেট্রোপলিটন মিউজিয়াম অফ আর্ট –এ অনুষ্ঠিত হয়।

কারা আমন্ত্রিত হয়?

ফ্যাশন ম্যাগাজিন ভোগ এর প্রধান সম্পাদক এই পুরো ইভেন্টের মূল হোতা। কমিটি গঠন থেকে শুরু করে আমন্ত্রিত অতিথিদের তালিকা তৈরি করা সবই হয় তার তত্ত্বাবধানে। এই ইভেন্টে ফ্যাশন, ফিল্ম, টেলিভিশন, থিয়েটার, সঙ্গীত, ব্যবসা, খেলাধুলা, সোশ্যাল মিডিয়া এবং রাজনীতি সহ বিভিন্ন পেশাগত ক্ষেত্রের সেলিব্রেটিদের আমন্ত্রণ জানানো হয় এতে। মোটামুটিভাবে ৬৫০ থেকে ৭০০ আমন্ত্রিত অতিথি থাকেন এই শো তে। অতিথি এবং হোস্টদের তালিকা দৃশ্যত প্রতি বছর পরিবর্তিত হয়ে থাকে। ব্লেক লাইভলি, সারা জেসিকা পার্কার, রিহানা সহ পরিচিত দীর্ঘদিনের মেট গালা অংশগ্রহণকারী ছাড়াও এখানে প্রতি বছর তরুন সৃজনশীল ব্যক্তি এবং ইন্ড্রাস্ট্রি প্যারাগনকে স্বাগত জানানো হয়।

থিম

এই ইভেন্টের সবচেয়ে আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে যা থাকে তা হলো থিম। প্রত্যেক বছরই একটা করে থিম থাকে, আমন্ত্রিত অতিথিরা এই থিম অনুসরণ করে নিজেদের উপস্থাপন করে থাকে তবে তা কিন্তু বাধ্যতামূলক নয়। এতে ককটেল আওয়ার এবং একটি আনুষ্ঠানিক ডিনার অন্তর্ভুক্ত। ককটেল আওয়ারের সময়, অতিথিরা রেড কার্পেটে হেঁটে আসেন এবং পৃথিবীর বিখ্যাত সব আলোকচিত্রীদের ক্যামেরাবন্দি হোন। ফ্যাশনের পরিপ্রেক্ষিতে, ডিজাইনারদের জন্য এটি একটি সুযোগ এবং সেলিব্রেটিদের সাথে পোশাক নিয়ে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার জন্য একটি উপায়। তারকাদের সাধারণত নিয়ম মেনে চলার পরিবর্তে উদ্ভাবনী পোশাক পরতে উৎসাহিত করা হয় এখানে। নির্বাচিত থিম একটি গল্প বলে বা ইতিহাস থেকে কিছু শেখায়। উদাহরণস্বরূপ, ২০১৮ সালের ইভেন্টের থিম ছিল ‘স্বর্গীয় সংস্থাঃ ফ্যাশন এবং ক্যাথলিক কল্পনা’। এটি ভ্যাটিকান থেকে শতাধিক পবিত্র জিনিসপত্র প্রদর্শন করে। রিহানা পোপের পোশাক পরে, ক্যাটি পেরি ডানা সহ দেবদূত অবতারে নিজেকে উপস্থাপন করেছগিলেন। অদ্ভুত দর্শনের সাজ পোশাকে হাজির হওয়া ২০১৯ সালের মেট গালা ইভেন্টের থিম ছিলো ‘ক্যাম্পঃ নোটস অন ফ্যাশন’। না, এখানে ক্যাম্প বলতে স্লিপিং ব্যাগ এবং তাঁবুর সহকারে ক্যাম্প নয় বরং অতিরঞ্জিত ফ্যাশন হিসেবে ক্যাম্প বুঝানো হয়েছে। ১৯৬৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের লেখক ও পলিটিক্যাল অ্যাক্টিভিস্ট সুজান সোনট্যাগের লেখা ‘নোটস অন ক্যাম্প’ দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে এই থিম নির্ধারণ করা হয়েছিলো। ২০২২ সালের থিম ছিলো ‘আমেরিকাঃ অ্যান অ্যানথোলজি অফ ফ্যাশন’। প্রতি বছরের ন্যায় এবারেও নামি-দামি তারকারা মেট গালার রেড কার্পেটে চমক নিয়ে হাজির হয়েছিলেন।

-ছবি সংগৃহীত

 

 

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

17 + eighteen =