ঈদের দিনের রেসিপি

করেছে Sabiha Zaman

ঈদে খাবার টেবিলে চমক না থাকলে ঈদ ভাবটাই জমে না। কিন্তু সব ঈদে খাবারে চাই ভিন্নটা আর বাড়তি চমক। ঈদে কিছু মজার রেসিপি দিয়ে সাজানো এবারের রোদসী।নানা পদের রেসিপি থাকছে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত। রেসিপি পাঠিয়েছেন ফাহা হোসেইন।

চিকেন আফগানি পোলাও
উপকরণ:
বাসমতি চাল ৫০০ গ্রাম, মুরগীর মাংস ১ কেজি, আলু ১/২ কেজি
আলু বোখারা ১ টেবল চামচ, কিসমিস ১ চা চামচ, জাফরান ১ চিমটি, তরল দুধ ১ কাপ, আদা বাটা ১ টেবল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবল চামচ, মরিচের গুড়া ১ চা চামচ, পেয়াজ কুচি ২ কাপ, কাচামরিচ ফালি ৭/৮ টা, তেজপাতা ৩ টা, দারচিনি ২ ইি , এলাচ ৩/৪ টা, শুকনা মরিচ ৫/৬ টা, লবন ১ চা চামচ, ঘি ৪ টেবল চামচ, তেল ৪ টেবল চামচ,গরম পানি ৭০০ গ্রাম।

প্রণালী:

প্রথমে মুরগীর টুকরোগুলোকে লবন এবং মরিচের গুড়া মাখিয়ে মেরিনেট করে রাখো, অন্যদিকে তরল দুধ গরম করে তাতে জাফরান ভিজতে দাও, এবার প্যানে তেল ও ঘি একসাথে গরম করে তাতে মুরগিগুলো এপিঠ ওপিঠ করে ভালো মত ভেজে নিতে হবে। এবারে রসুন বাটা দিয়ে হালকা কষিয়ে বাকি সব উপকরন যেমন আলু, আলু বোখারা, কিশমিশ, জাফরান ভেজানো দুধ,পেয়াজ কুচি, গরম মসলা, গরম পানি একে একে দিয়ে দিতে হবে। প্রথমবার বলগ আসলে জ্বাল কমিয়ে দমে বসিয়ে রাখো, ভাত ঝরঝরে হয়ে এলে নামিয়ে পরিবেশন করো।

মেজবানি গোশ

উপকণ:

গরুর রানের মাংস ১ কেজি, আদা বাটা ১ টেবল চামচ, রসুনবাটা ১ টেবল চামচ, ধনেগুড়া ১/২ চা চামচ, জিরা গুড়া ১/২ চা চামচ,
হলুদের গুড়া ১/২ চা চামচ,মরিচের গুড়া ১ চা চামচ, পেয়াজ কুচি ২ কাপ, কাচামরিচ ফালি ৭/৮ টা, তেজপাতা ৩ টা, দারচিনি ২ ইি , এলাচ ৩/৪ টা, শুকনা মরিচ ৫/৬ টা, লবন ১ চা চামচ, তেল ১/২ কাপ।

প্রণালী:

প্রথমে রানের মাংস গুলো ২ ইি মাপে কিউব করে কেটে নাও, এবার একটা প্যানে তেল গরম করে তাতে তেজপাতা,দারচিনি, এলাচের ফোড়ন দিয়ে তাতে মাংসগুলো ছেড়ে দিয়ে এতে একে একে রসুন বাটা, আদা বাটা, পেয়াজ কুচি, হলুদের গুড়া, মরিচের গুড়া, কাচামরিচ ফালি, জিরা গুড়া, ধনে গুড়া দিয়ে ঢেকে খুব অল্প জ্বালে দমে রাখুন,৩০ মিনিট পর একটু নেড়েচেড়ে হালকা পানি যোগ করো। এভাবে প্রতি ৩০ মিনিটে কিছুটা পানি যোগ করেই রান্না টা করতে হবে, মাংস সেদ্ধ হয়ে এলে ভুনা ভুনা হয়ে এলে তা পোলাও এর সাথে পরিবেশন করে অবাক করে দাও।

ডাল মাংসের বড়া
উপকরণ:
রান্না গরুর মাংস ১ কাপ, মুসুর ডাল ১ কাপ, পানি ২ কাপ, পেঁয়াজ কুচি ৩ কাপ, রসুন ১ টা, কাঁচা মরিচ ৫/৬ টি,গোল মরিচের গুড়া ২ চা চামচ, লবণ ১ চা চামচ, বিট লবণ আধা চা চামচ, বেকিং পাউডার আধা চা চামচ, তেল ভাজার জন্য ১/২ কাপ।
প্রণালী:
প্রথমে এক কাপ মসুরের ডাল দুই কাপ পানিতে সারারাত ভিজিয়ে রাখতে হবে। পরের দিন কয়েক বার পানি বদলিয়ে ভালো করে ডাল ধুয়ে নিতে হবে। এবার রান্না মাংস গুলোকে হামান দিস্তায় ছেচে। ব্লেন্ডারে একটি রসুন কোয়া খুলে ও ছিলে ডালের সাথে দিয়ে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। অথবা শিলপাটায় বেটে নিতে হবে।ব্লেন্ড করার সময় বা পেশার সময় খেয়াল রাখতে হবে যেন ডালটি আধাভাঙ্গা থাকে; একদম মিহি পেস্ট না হয়ে যায়।

একটি প্লেটে কাঁচামরিচ কুচি, লবণ ও বিট লবণ নিয়ে হাত দিয়ে কচলে নিতে হবে।পেঁয়াজ কুচি (মোটা করে কুচি করা) দিয়ে আবার মেখে নিতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে যেন পেঁয়াজ ভেঙ্গে না যায়। যখন পেঁয়াজ থেকে রস বের হতে থাকবে তখন বুঝতে হবে হয়ে গেছে। এবার গোলমরিচ গুঁড়া অর্ধেকটা দিতে হবে। তারপর পেঁয়াজের মিশ্রণকে ডালের মিশ্রণের সাথে নিয়ে আলতো করে মাখাতে হবে যেন ডাল, পেঁয়াজ, মরিচ আলতো করে মিশে যায়।
বাকি অর্ধেক গোলমরিচ দিতে হবে। বেকিং পাউডার এবং ছেচা মাংস গুলো দিয়ে দিতে হবে। মিশ্রণটা একটু নরম নরম হবে। বেশি শক্ত হবে না। একটা কড়াইয়ে তেল দিয়ে হাত দিয়ে পাতলা শেপ করে ডুবো তেলে ডাল মাংসের বড়া ভাজতে হবে, ভাজা হয়ে গেলেই গরম গরম পরিবেশন করার পালা।

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

4 + 11 =