কোরিয়ান গ্লাস স্কিন পেতে করণীয়

করেছে Shaila Hasan

শায়লা জাহানঃ

ক্রিস্টাল ক্লিয়ার ত্বক অথবা দাগহীন ত্বক কে না চায়? প্রসঙ্গ যখন আসে সুন্দর ও স্বাস্থ্যকর উজ্জ্বল ত্বকের, তখন আমরা সমস্ত পন্থাই বেছেই নিই এবং নিজেদের নিখুঁত দেখাতে যথাসাধ্য চেষ্টা করি। এখন নিখুঁত দেখতে এবং কাঁচের মতো দাগহীন ত্বকের কথা বললেই কোরিয়ান গ্লাস স্কিনের বিষয়টি আসে। কি এই কোরিয়ান গ্লাস স্কিন? কীভাবেই বা হবে এমন? এসবের উত্তর মিলবে এখানেই।

গ্লাস স্কিনের স্রষ্টা, কোরিয়ানরা তাদের ত্রুটিহীন, উজ্জ্বল ও চমৎকার ত্বকের জন্য পরিচিত। গ্লাস স্কিন হলো এমন একটি স্কিনকেয়ার ধারণা যেখানে ত্বক উজ্জ্বল ও স্বচ্ছতা দেখায়, যে স্বচ্ছতার কারণে যেন মনে হয় স্কিনে কাঁচের মতো প্রতিফলিত হচ্ছে। এটি একটি জনপ্রিয় কে-বিউটির উন্মাদনা যা বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে। এই গ্লাস স্কিনকে একটি ক্লিয়ার, স্মুথ টেক্সচার এবং প্লাম্প ত্বক হিসেবে সংজ্ঞায়িত করা হয়। এই নিখুঁত ডিউয়ি বা শিশিরযুক্ত লুকটি উষ্ণভাবে ময়শ্চারাইজড ত্বক থেকে নির্গত হয় এবং ব্যক্তিকে তারুণ্যের আভা দেয়।

কীভাবে পাব এই গ্লাস স্কিন?

বিউটি দুনিয়ায় বেশ জনপ্রিয় এবং ট্রেন্ডিং এই গ্লাস স্কিন পেতে খুব বেশি ঘাম ঝরানোর প্রয়োজন হয়না। সহজেই কিছু স্টেপ ফলো করলেই তুমিও পেতে পারো ত্বকের এই আকাঙ্ক্ষিত রেজাল্ট।

ডবল ক্লিনজিং মাস্ট

এতে অবাক হওয়ার কিছু নেই যে জনপ্রিয় এই কে-বিউটি ধারণার সাথে ডবল ক্লিনজিং বিষয়টি জড়িত। আমাদের ত্বকে এই টেকনিকটি অবিশ্বাস্যভাবে কাজ করে। ডবল ক্লিনজিং এর ক্ষেত্রে প্রথম ক্লিনজটি মুখের যেকোন মেকআপ, ময়লা, ঘাম এবং অত্যধিক তেল মুছে ফেলবে। এইজন্য প্রথম স্তরের জন্য প্রয়োজন হয় অয়েল-বেইজড ক্লিনজার বা মিসেলার ওয়াটার।

মুখ থেকে মেকআপ এবং সানস্ক্রিন ভালোভাবে মুছে ফেলার পর দ্বিতীয় ক্লিনজে ত্বকের ধরণের উপর ফোকাস করা উচিৎ। আর এক্ষেত্রে প্রয়োজন হয় একটি মৃদু হাইড্রেটিং ফেস ওয়াশ। এতে মুখ ধোয়ার পরেও তা ড্রাই হয়ে যাবেনা।

এক্সফোলিয়েট

স্কিন কেয়ারের এই ধাপটি চাইলে রাতের জন্য রাখতে পারো, বিশেষ করে তুমি যদি এক্সফোলিয়েশনের উপায় হিসেবে ফটোসেনসাইটিং অ্যাসিড ব্যবহার করতে চাও। তবে ঘন ঘন এটি করা থেকে বিরত থাকতে হবে। এক্সফলিয়েটের মাধ্যমে ত্বকের অতিরিক্ত মৃত কোষ দূর হয় এবং ত্বকের কালো দাগ কমতে সাহায্য করে।

টোনার

যারা ত্বকে সত্যিই আর্দ্রতা আনতে চাও তাদের জন্য টোনিং মাস্ট। পরিষ্কার মুখে আমাদের সবসয়ই টোনার ব্যবহার করা উচিৎ। আজকাল টোনারগুলো অতীতের মতো শুষ্ককারী অ্যাস্ট্রিনজেন্ট নয়, তাই তারা উচ্চ হাইড্রেটেড ত্বকের লক্ষ্যের বিপরীতে নয়। এটি ব্যবহারে ত্বকে একটি সুরক্ষা স্তর তৈরি হয়, পিএইচ’র ভারাসাম্য বজায় থাকে। কটন বলের সাহায্যে অথবা হাত দিয়ে না ঘষে চেপে চেপে টোনার এপ্ল্যাই করতে হবে।

এসেন্স

এসেন্স হল একটি হালকা ওজনের ওয়াটার-বেইজড পণ্য যা ত্বকে আর্দ্রতা যোগ করে। এটি বার্ধক্যের লক্ষণ প্রতিরোধ করে এবং ত্বকের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করে। এসেন্স হলো গ্লাস স্কিনের রুটিনের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য অংশ কারণ এটি তোমার ত্বককে একটি প্রাকৃতিক আভা দেয়।

হাইড্রেটিং সিরাম

কোরিয়ান বিউটি কেয়ারে সিরামের ব্যবহার আবশ্যক। ছোট অণু সহ সিরাম যা ত্বকের গভীর স্তরগুলোতে প্রবেশ করতে পারে এবং পণ্যগুলো যা বাহ্যিক কারণ থেকে ত্বকের উপরিভাগের স্তরগুলোকে রক্ষা করার সময় আর্দ্রতাকে লক করতে পারে। এটি ত্বককে ভেতর থেকে হাইড্রেট করে। ভিতামিন সি এবং হায়ালুরোনিক অ্যাসিডের শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্যগুলো ফ্রি র‍্যাডিকেল ক্ষতি প্রতিরোধ করে, যার ফলে ত্বক উজ্জ্বল এবং তরুন করে। এটি ত্বকের গঠন উন্নত অরে এবং প্রাকৃতিক আভা ধরে রাখতে সাহায্য করে।

ময়েশ্চারাইজিং করা

হাইড্রেটিং ময়েশ্চারাইজার দিয়ে লেয়ারিং করে সব লক করে দাও যা তোমার ত্বককে মসৃণ এবং কোমল দেখায়। এক্ষেত্রে ম্যাট ফিনিশ দেয় এমন ময়েশ্চারাইজার না নিয়ে হালকা ওজনযুক্ত টেক্সচারের নাও, যা তাৎক্ষণিকভাবে শোষিত হতে পারে এবং ত্বকের গভীরে প্রচুর হাইড্রেশন কার্যকরভাবে লক করে।

সানস্ক্রিন

যেকোন স্কিনকেয়ার ব্যবস্থায় একটি অ-আলোচনাযোগ্য পদক্ষেপ হল সানস্ক্রিন। জেল-ভিত্তিক সূত্রগুলো দীর্ঘমেয়াদি হাইড্রেশন এবং সূর্য থেকে সুরক্ষা প্রদান করে এবং একটি অ্যান্টি-এজিং কোট হিসেবে কাজ করা যা হাইড্রেশন সিল করে এবং সূক্ষ্ম রেখা ও বলিরেখা প্রতিরোধ করে। এটি ত্বককে একটি নিশ্ছিদ্র এবং নরম চেহারাও দেয়।

শীট মাস্ক

শীট মাস্কের উপাদানগুলো ত্বককে একটি প্রাকৃতিক আভা দেয় এবং এটি সুপার নরম করে তোলে। বর্ধিত স্থিতিস্থাপকতা এবং উন্নত ত্বকের স্বাস্থ্যের জন্য  প্রয়োজন শীটমাস্কের। এটি ত্বকের কোষের পুনর্জন্মকে উন্নত করেও, দাগ এবং বয়সের দাগের উপস্থিতি কমিয়ে দেয়, ময়েশ্চারাইজ করে এবং ব্রণ ব্রেকআউটকে শান্ত করে। এবং বাসায় বসে গ্লাস স্কিন অর্জনের শেষ পদক্ষেপ হয়ে উঠে।

-ছবি সংগৃহীত

 

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

twenty − 11 =