গ্যাস্ট্রিক হবে দূর

করেছে Rubayea Binte Masud Bashory

পেটে গ্যাসের সমস্যায় ভোগা লোকের সংখ্যা কম নয়। পেটে গ্যাস হলে পড়তে হয় অস্বস্তিতে। এর সমাধান রয়েছে প্রকৃতিতেই। প্রাকৃতিক কিছু খাবারেই দূর হবে এই সমস্যা।

গ্যাস হওয়ার কারণ

পেটে গ্যাস হওয়ার কারণ হলো পেটে অতিরিক্ত পরিমাণে এসিড জমা হওয়া। ফলে পেটে ব্যথা, গ্যাস, বমিবমি ভাব, মুখে দুর্গন্ধের মতো বিরক্তিকর সমস্যা দেখা দেয়। আর গ্যাস জমা হয় মূলত পানি কম খেলে, অতিঝালযুক্ত ও তৈলাক্ত খাবার বা খাবারে আঁশের পরিমাণ কম থাকলে, অনিয়মিত খাদ্যাভ্যাস, খাবার ঠিকভাবে হজম না হলে, দুশ্চিন্তা করলে এমনকি শরীরচর্চা না করলেও পেটে গ্যাস তৈরি হয়।

পেটের গ্যাসের প্রাকৃতিক সমাধান

প্রকৃতিতেই এমন কিছু খাবার আছে যা খেলে পেটে জমে থাকা গ্যাস দূর হবে নিমিষেই।
আদা অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান সমৃদ্ধ খাবার। তাই পেট ফাঁপা এবং পেটে গ্যাস হলে আদা কুচি করে লবণ দিয়ে কাঁচা খেলে নিমিষেই দূর হবে।

মৌরি ভিজিয়ে রেখে সেই পানি খেলে গ্যাস দূর হয়।

দইয়ে ল্যাকটোব্যাকিলাস, অ্যাসিডোফিলাস ও বিফিডাসের মতো নানা উপকারী ব্যাকটেরিয়া থাকায় দই খেলে হজম ভালো হয়। তাই খাবারের পর দই খাওয়ার প্রচলন আছে। কারণ খাবার ভালোভাবে হজম হলে গ্যাস কমে।

শসা পেট ঠান্ডা রাখতে অনেক বেশি কার্যকরী খাদ্য। এতে রয়েছে ফ্লেভানয়েড ও অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি উপাদান যা পেটে গ্যাসের উদ্রেক কমায়।

Why cucumbers are a great healthy snack - Health - The Jakarta Post

আনারসে ব্রোমেলাইন নামের কার্যকর পাচক রস থাকায় পরিপাকতন্ত্র পরিষ্কার রাখে। আনারসে আছে ৮৫ শতাংশ পানি আছে।

One Major Side Effect of Eating Pineapple, Says Dietitian

হালকা গরম পানির সঙ্গে লেবুর রস যুক্ত করলে তা প্রাকৃতিক মলবর্ধক হিসেবে কাজ করে। এটি পরিপাকতন্ত্র পরিষ্কার রাখতে কাজ করে।

দারুচিনি হজমের জন্য খুবই ভালো। তাই এক গ্লাস পানিতে আধ চামচ দারুচিনির গুঁড়ো দিয়ে ফুটিয়ে খেলে গ্যাস দূর হয়।
গোটাকয়েক লবঙ্গ মুখে দিয়ে চিবুতে থাকলে বুক জ্বালা, বমিবমিভাব, গ্যাস দূর হওয়ার পাশাপাশি মুখের দুর্গন্ধও দূর হয়।

যা করা অনুচিত

পেটে গ্যাসের সমস্যা থাকলে কিছু বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে।

খাবার খেয়েই ঘুম নয়

অনেকেই খাবার খাওয়ার পর পরই ঘুমিয়ে পড়ে। ফলে খাবার ঠিকমতো হজম হতে পারে না। খাবার হজম না হলেই গ্যাস তৈরি হয়।

ডাল জাতীয় খাবার থেকে বিরত থাকা

পেটে গ্যাস হয় এমন কোন খাবার যেমন ডাল জাতীয় খাবার অর্থাৎ মসুরের ডাল,বুট,ছোলা,সয়াবিন এগুলো খাবার পরিত্যাগ করা উচিত। কারণ এগুলোতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, সুগার ও ফাইবার। আর এগুলো সহজে হজম না হওয়ায় গ্যাসের সমস্যা সৃষ্টি করে।

তেল জাতীয় খাবার পরিত্যাগ

অতিরিক্ত তেল ও মসলায্ক্তু খাবার অবশ্যই পরিত্যাগ করতে হবে। এছাড়াও ডুবো তেলে ভাজা যেকোনো ধরণের তৈলাক্ত খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।

রোদসী ডেস্ক

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

two × 1 =