চুল পড়ছে?

করেছে Sabiha Zaman

ছেলে হোক বা মেয়ে, চুল পড়ার সমস্যা প্রায় সবারই থাকে। তাই তো চুল পড়া কমাতে আমরা কত কিছু ট্রাই করি। অনেক সময় ভুল উপকরণ ব্যবহার কিংবা অতিরিক্ত রাসায়নিক পণ্য ব্যবহার করে চুল পড়তেই থাকে। স্বাভাবিকের থেকে চুল পড়া বেড়ে গেলে ভাবতে হয়। সঠিক কিছু উপকরণ ব্যবহার করে মুক্তি পেতে পারো চুল পড়া থেকে। চুল পড়া রোধের টোটকা নিয়ে লিখেছেন শশী।

চুল পরিষ্কার রাখা
তুমি যদি চুল পড়া কমাতে চাও, তবে নিয়মিত চুলের যত্ন নিতে হবে। আর চুল পরিষ্কার করাও এর অংশ। অনেকেই আছে যারা নিয়মিত চুল পরিষ্কার করে না। ফলে ময়লা জমে খুশকি হয় এবং চুল পড়তে শুরু করে। সপ্তাহে কমপক্ষে দুই দিন চুল শ্যাম্পু করতে হবে। শাম্পু করার পর কন্ডিশন ব্যবহার করতে ভুলবে না।

তবে প্রতিদিন চুলে শ্যাম্পু ব্যবহার না করাই ভালো। এতে করে চুল রুক্ষ হয়ে যায়। আর প্রাকৃতিক সিল্কি ভাব কেটে যায়।

তেল ম্যাসাজ
চুল পড়া রোধ করার জন্য তেল ম্যাসাজ করাটা জরুরি। এতে স্কাল্পে রক্তপ্রবাহ খুব বেড়ে যায়। ফলে চুলের গোড়া আরও শক্ত হয়। যখন চুলের গোড়া শক্ত থাকে, চুল পড়া স্বাভাবিকভাবেই কমে যায়। চাইলে তেল একটু গরম করে আর সঙ্গে মেথি মিশিয়ে নিতে পারো। বাজারে বিভিন্ন ধরনের তেল পাওয়া যায়। যার মধ্য নারকেল তেল, বাদাম তেল, অলিভ অয়েল অথবা আমলার তেল রয়েছে। চুল পড়া কমানোর জন্য অনেক ভালো ব্র্যান্ডের তেল রয়েছে। এগুলো নিতে পারো।

মেথি
এবার বলি মেথির কথা। এই প্রাকৃতিক উপাদানটি চুল পড়া রোধে দারুণ কাজ করে। সঙ্গে চুল বৃদ্ধিতেও ভূমিকা রাখে। মেথি গুঁড়া করে মেহেদি দিয়ে পেস্ট করে ব্যবহার করতে পারো।

আমলকী
আমলকীতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে। চুল পড়ার হাত থেকে রেহাই পেতে আমলকী খুব ভালো কাজ করে। আমাদের দেহে ভিটামিন সির ঘাটতি দেখা দিলে চুল পড়ে যায়। চুল পড়া ঠেকাতে পাশাপাশি চুলের বৃদ্ধিতে আমলকীর কোনো বিকল্প হয় না বললেই চলে। এক চামচ আমলার রসের সঙ্গে এক চামচ লেবুর রস মিশিয়ে পেস্ট তৈরি হবে। পেস্ট ভালোভাবে শুকিয়ে গেলে চুল ধুয়ে ফেলো।

পেঁয়াজের রস
ঘরোয়া সহজ উপায়ে চুল পড়া কমাতে চাইলে পেঁয়াজ ব্যবহার করতে পারো। পেঁয়াজে থাকা সালফার হেয়ার ফলিকলসে রক্ত চলাচল বাড়িয়ে দেয়। যার ফলে সময়ের সঙ্গে চুল পড়া কমতে থাকে। পেঁয়াজের রসে রয়েছে বিপুল পরিমাণে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল প্রপার্টিজ, যা স্কাল্পের সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে অনেক বেশি। পেঁয়াজ থেকে রস নিয়ে ৩০ মিনিটের মতো রেখে ভালোভাবে শাম্পু করে ধুয়ে ফেলো। সপ্তাহে দুবার চুলে পেঁয়াজের রস লাগাবে, দেখবে ম্যাজিক।

অ্যালোভেরা
অ্যালোভেরা থাকা এনজাইম চুলের বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এবং চুলের গোড়া শক্ত করে। পরিমাণমতো অ্যালোভেরা জেল নিয়ে স্কাল্পে লাগিয়ে ফেলো। কিছু ঘণ্টা অপেক্ষা করে হালকা গরম জলে ভালো করে মাথাটা ধুয়ে নাও। সপ্তাহে কমপক্ষে দুবার এভাবে অ্যালোভেরা জেল মাথায় লাগালে দারুণ উপকার পাওয়া যায়।

ছবি: সংগৃহীত

 

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

seven + 7 =