টুথপেস্টের জাদুকরী যত ব্যবহার

করেছে Shaila Hasan

শায়লা জাহান

 

দাঁতের যত্নে অতি পরিচিত উপাদান টুথপেস্ট। কিন্তু জানো কি এর কত গুণ আছে? দাঁত ঝকঝকে করতে যে টুথপেস্ট ব্যবহার করা হয় তা বাড়ির চারপাশের অনেক জিনিস পরিষ্কার করতে কাজে আসতে পারে। দেয়াল থেকে শুরু করে জুতা পর্যন্ত সমস্ত কিছুর দাগ অপসারনে বিস্ময়কর কাজ করে। আসো জেনে নিই টুথপেস্টের এমন চমৎকার কিছু ব্যবহার।

বাথরুমে ব্যবহার

অনেক সময় বাথরুম ক্লিনার হাতের কাছে এভেলএবেল থাকেনা তখন টুকিটাকি পরিষ্কার করতে  টুথপেস্ট হতে পারে এর উপযুক্ত বিকল্প।

-একটি নরম কাপড়ে টুথপেস্ট নিয়ে তা সিঙ্ক এবং শাওয়ার ফিক্সচারগুলোতে ছোট বৃত্তে ঘষে ঘষে লাগিয়ে রাখতে হবে। তারপর একটি শুকনো কাপড় দিয়ে মুছে ফেললে দুর্দান্ত দেখাবে।

-শাওয়ার ডোরে অনেক সময় সাবানের দাগ পরে থাকে। একটি ড্যাম্প স্পঞ্জ বা কাপড়ে সামান্য টুথপেস্ট নিয়ে তা দিয়ে পরিষ্কার করলে এই সাবানের দাগ চলে যাবে।

-ব্রাশ করার সময় অসতর্কভাবে যদি বাথরুমের বেসিনে টুথপেস্ট পরে যায় তা ধুয়ে না ফেলে কোন স্পঞ্জ দিয়ে পেস্ট দিয়ে পুরো বেসিন পরিষ্কার করে ভালোভাবে ধুয়ে নিতে হবে। যে কোন স্যাঁতস্যাঁতে ভাব বা গন্ধ দূর করতে এটি ভালো কাজ দিবে।

-যদি দ্রুত ও আর্জেন্ট টয়লেট পরিষ্কার করতে হয় এবং টয়লেট ক্লিনার শেষ হয়ে যায়, এমতাবস্থায় টুথপেস্ট নিয়ে তা দিয়ে টয়লেট ব্রাশ দিয়ে পরিষ্কার করে নেয়া যায়। এতে দাগও দূর হবে আবার একটি ফ্রেশ গন্ধ ছেড়ে দিবে। তবে এটি ব্যাকটেরিয়া থেকে মুক্তি পেতে টয়লেটকে জীবাণুমুক্ত করবেনা, কিন্তু জরুরী অবস্থায় কিছুটা হলেও কাজে দিবে।

-বাথরুমের আয়না মুছে ফেলার জন্য একটি ভেজা কাপড়ে একটু টুথপেস্ট ব্যবহার করো। ভালোভাবে তা লাগিয়ে শুকাতে রাখতে হবে। শুকিয়ে গেলে পরে তা মুছে ফেললে আয়না একদম ঝকঝকে দেখাবে।

পার্সোনাল কাজে ব্যবহার

জুয়েলারি এবং জুতা পরিষ্কারে টুথপেস্টের ব্যবহার অনবদ্য।

-স্নিকারের সোল বা পায়ের আঙুলের রাবারের অংশটিতে যদি নোংরা হয়, তা পরিষ্কার করার জন্য পুরানো টুথব্রাশে একটু পেস্ট নিয়ে সেই অংশগুলোতে ভালোভাবে স্ক্রাব করে নিতে হবে। তারপর একটি ভেজা কাপড় দিয়ে অবশিষ্ট পেস্ট এবং ময়লা মুছে ফেলতে হবে।

-একটি নরম কাপড় বা স্পঞ্জে টুথপেস্ট নিয়ে তা মসৃণ চামড়া, পেটেন্ট চামড়া বা ভিনাইল জুতা থেকে দাগ দূর করবে। প্রথমে পেস্ট দিয়ে ছোট ছোট এরিয়াতে মুছে নিতে হবে। তবে মনে রাখতে হবে যে এই পদ্ধতি সোয়েড চামড়ার জুতা বা বুট গুলোতে ভালো কাজ করবেনা।

-রুপো বা হীরার গহনা কিছুটা নিস্তেজ দেখালে টুথপেস্ট তাতে দূর্দান্ত কাজ দিবে। একটি পুরানো টুথব্রাশে কিছুটা পেস্ট নিয়ে তা দিয়ে হালকা হাতে ঘষতে হবে। তারপর ভালোভাবে ধুয়ে শুকিয়ে নিলেই সেই আগের দ্যুতি ফিরে আসবে। তবে মুক্তা বা ওপালের মতো নরম রত্নগুলোতে কখনও টুথপেস্ট ব্যবহার করা ঠিক না এবং ঘষানোও ঠিক না। এতে সেগুলোতে আঁচড় বসে যাবে।

রান্নাঘরে ব্যবহার

এটি শুধু বাথরুমেই নয় রান্নাঘরেও পেস্ট ম্যাজিকের মত কাজ করে।

-রান্নার পরে যদি হাতে পেঁয়াজ বা মাছের গন্ধ লেগে থাকে, তবে হাতের তালুতে একটু টুথপেস্ট নাও। ভালভাবে দুহাত একসাথে ঘষতে হবে এবং তারপর ধুয়ে ফেলতে হবে। এতে গন্ধ যেমন যাবে সাথে হাতের নখগুলো আরও সাদা এবং উজ্জ্বল দেখাবে।

-বোতলের ভেতর থেকে টক টক গন্ধ বেরুলে পেস্ট এক্ষেত্রে চমৎকার কাজ করে। বোতলের মধ্যে একটু পেস্ট নিয়ে ব্রাশ দিয়ে পরিষ্কার করে নিলেই হবে। গন্ধ দূর হয়ে যাবে নিমিষেই।

ঘরের চারপাশে ব্যবহার

-পিয়ানো বা হারমোনিয়ামের চাবি খুব সেনসেটিভ। এগুলো পরিষ্কারের সময় সতর্কতা অবলম্বন করা উচিৎ। ব্রাশে পেস্ট নিয়ে হাল্কা হাতে চাবিগুলো মুছে নিতে হবে। এরপর নরম কাপড় দিয়ে মুছে নিলেই হয়ে যাবে।

-আয়রন করার সময় পানি ব্যবহারের কারনে এর ফোকর গুলোতে কালো দাগ পড়ে যায়। পেস্টে সিলিকা থাকে। তাই এটি দিয়ে আয়রনের ধাতব পাতে ঘষলে চকচকে হয়ে যাবে।

-ছোট বাচ্চারা দেয়াল পেলেই পেন্সিল বা চক দিয়ে আঁকিবুঁকি করে। এই দাগ পরে সহজেই উঠতে চায়না। কিন্তু পেস্ট দিয়ে এই দাগ সহজেই উঠানো যায়। দাগের উপর টুথপেস্ট দিয়ে ব্রাশ দিয়ে ঘষতে হবে। দাগ চলে যাবে।

-হাতের আঙুলের ডগায় সামান্য পরিমানের পেস্ট সেল ফোনের স্ক্রিন থেকে দাগ বের করে দিবে। পরে একটি ভেজা কাপড় দিয়ে মুছে শুকিয়ে নিতে হবে।

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

1 − 1 =