ট্যুরিজমের অনলাইন প্লাটফর্ম!

করেছে Rodoshee

দীর্ঘ কাজের শেষে সবাই চায় অবসর। ছুটির দিনে এই অবসর কাটানোর জন্য একেকজন পছন্দ করে একেক রকমের পদ্ধতি। কেউ ঘরে বসে বই পড়ে, কেউ পরিবারকে সময় দেয়, আবার কেউ পছন্দ করে ঘুরতে যেতে। বিশেষ করে যারা ঘুরতে যায় দেশের বাইরে, তারা বেশ আগে থেকেই প্ল্যান করে রাখে তাদের ট্যুরের। সাধারণত আমাদের এশিয়া মহাদেশের লোকেরা দেশের বাইরে ছুটি কাটাতে যেসব স্থান পছন্দ করে, তাদের মধ্যে সবচেয়ে এগিয়ে আছে থাইল্যান্ড। থাইল্যান্ডের পর্যটকদের জন্য আন্তর্জাতিক মানের সব ব্যবস্থা সহজেই পর্যটককে মুগ্ধ করে। এ ছাড়া থাইল্যান্ডের শত শত সুন্দর স্থানও পর্যটকদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকার অন্যতম কারণ।

বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে ভ্রমণকারীর সংখ্যা প্রচুর। প্রতি সপ্তাহ, মাসে এবং বড় বড় ছুটিতে থাইল্যান্ডে বাংলাদেশি পর্যটকদের ভিড় চোখে পড়ার মতো। বাংলাদেশের অপার সৌন্দর্য উপভোগ করার পর দেশের বাইরে ছুটির দিন কাটানোর জন্য যারা পরিকল্পনা করেন, তাদের অধিকাংশের প্রথম প্রছন্দের তালিকায় থাকে থাইল্যান্ড। আর সাদা হাতির দেশ থাইল্যান্ডের পর্যটন আকর্ষণের মধ্যে পাতায়া, ক্রাবি, ফুকেটচিয়াং মাই, ওয়াত ফ্রা কেইও (এমারেল্ড বুদ্ধের মন্দির), রেইল্যে সৈকত, থাইল্যান্ড, ফি-ফি দ্বীপপুঞ্জ, পাটোং সৈকতসহ আরও অনেক কিছু রয়েছে। অনেকেই ইন্টারনেটে এসব পর্যটন স্থান সম্পর্কে জেনে এসব স্থান ঘুরে দেখার ইচ্ছা করেন। কিন্তু সমস্যা বাধে বিদেশ হওয়ার কারণে। সব স্থানে সঠিক তথ্য না জানার কারণে অনেক সুন্দর স্থানও দেখা হয় না পর্যটকদের। অনেক ক্ষেত্রে পর্যটকেরা যেসব এজেন্সির সহযোগিতা নেন, তারা প্রায়ই কয়েকটি স্থানই বারবার দেখায়। এ ছাড়া বুকিং দিতে কিংবা সেবা পেতে অনেক ঝামেলা।

এদিক থেকে সম্পূর্ণ উল্টো আমুজামু ডট কম। কারণ আমুজামু ডট কমে (amujamu.com) গেলেই সেখানে আপনি পাবেন হাজারের ওপরে দর্শনীয় স্থান। অন্য এজেন্সিগুলো যেভাবে শুধু কয়েকটি স্থানই দেখায় আমুজামু তেমন নয়। আপনি থাইল্যান্ডের যেখানে বেড়াতে যেতে ইচ্ছুক, সেখানেই যেতে পারবেন। এ ছাড়া টাকা পরিশোধ করতে পারবেন অনলাইনের মাধ্যমে।
একেকটি ভ্রমণ যেন একটি সতেজ নিঃশ্বাস! ট্যুরিজমের আন্তর্জাতিক মার্কেট প্লেস আমুজামু.কম এই স্লোগানকে (টেক এ ট্রিপ টেক এ ব্রেথ) সামনে রেখে শুরু করেছে তাদের কার্যক্রম। প্রতিষ্ঠানটি থাইল্যান্ডের পর্যটন কর্তৃপক্ষ (টিএটি) অনুমোদিত
থাইল্যান্ড পর্যটনের জন্য খুবই বিখ্যাত। এ দেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে অসংখ্য দেখার মতো সুন্দর জায়গা। উপভোগ করার আছে অনেক কিছু। এই যেমন পূর্ব থাইল্যান্ডের পাতায়ায় অবস্থিত গ্রীষ্মমন্ডলীয় দ্বীপপুঞ্জ আপনার চোখ জুড়াবে। এদিকে উত্তর থাইল্যান্ডে চিয়াংমাই, রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতার জন্য বিখ্যাত। আবার স্পা কিংবা এ জাতীয় কোর্স করতে চাইলে আপনাকে সেন্ট্রাল থাইল্যান্ড বা ব্যাংকক ভ্রমণ করতে হবে।

অনলাইনের দুনিয়া হওয়া সত্ত্বেও ক’দিন আগেও ট্যুরিজম বিষয়টি অতটা সহজ ছিল না। ক্লিকের দুনিয়ায় ভ্রমণ ছিল অ্যানালগ! আমুজামু ঠিক এই প্রক্রিয়াটিই সহজ করে তুলেছে। ট্যুর এখন মাউসক্লিকে! থাইল্যান্ডের ৩০টি প্রধান স্থান সাইটটিতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। আপনি আমাদের ওয়েবসাইটে ঢুকে কোথায় যেতে চান আর কী দেখতে চান, এটুকু নির্বাচন করে দিন। বাকিটা খুব সহজ। একে একে আপনি দেখতে পাবেন আপনার পছন্দের এলাকা কিংবা পছন্দের বিষয়ের ওপর নানা তথ্য। অনেক অনেক ট্যুর। এসব ট্যুরের উচ্চমানের ছবি এবং মাল্টি-ভাষা বর্ণনা আপনাকে বুকিং করার আগেই একটি ট্রিপ সম্পর্কে একটি সুন্দর ধারণা দেবে। ভাবছেন কীভাবে বুক করবেন? কোথায় যেতে হবে? নাহ্, এর জন্য আপনাকে কোথাও যেতে হবে না। দাম নিয়েও ভাবতে হবে না। এমনকি আপনি থাইল্যান্ডে পৌঁছানোর আগেই আপনার পুরো সফর প্ল্যান এখান থেকে বুক করতে পারেন। এতে আপনি খুব সহজেই ভ্রমণ পরিকল্পনা করতে পারবেন।

আমুজামু সাইটটি একাধিক ভাষা এবং মুদ্রা সমর্থন করে। এখানে আপনি গাইড নির্দেশিত ট্যুর কিংবা পছন্দসই গ্রুপ ট্যুর তো পাবেনই। এ ছাড়া বিশেষ রান্নার ক্লাস অথবা স্পার মতো জনপ্রিয় বিষয়গুলো খুঁজে পাবেন। জনপ্রিয় পর্যটক স্পটের ওপর ভিত্তি করে আমুজামুর ট্যুরগুলো ৩০টির বেশি ভাগে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। যাতে খুব সহজেই মানুষ তার প্রয়োজনীয় ট্যুরগুলো খুঁজে পায়।
একবার একটু ভাবুন তো ক’দিন আগের কথা! ট্যুর করতে কত ঝক্কি! জনপ্রিয় বিভিন্ন এলাকা কিংবা দর্শনীয় স্থানগুলো খুঁজে পেতে কত ঝামেলাই না পোহাতে হতো! তারপর তো ছিল বুকিং করার ঝামেলা। কিন্তু এখন আমাদের সঙ্গে মাত্র একটি লাইভ চ্যাটেই পেয়ে যেতে পারেন মুশকিল আসান! সমস্যা সমাধানে একেবারে বিশেষজ্ঞ টিপস! ভাববেন না অন্য কোনো ঝামেলা আছে, আমাদের পেমেন্ট পদ্ধতিও খুব সহজ। যাকে বলে পানির মতো! আবার কোনো কারণে কোনো ট্যুর বাতিল করতে চান? জাস্ট একটা ফোন করুন আমাদের কলসেন্টারে। ব্যস, সমাধান হয়ে যাবে। আপনি চাইলে লাইভ চ্যাট কিংবা ই-মেইলের মাধ্যমেও আমাদের সেবাগুলো নিতে পারেন। সব অপশনই আমরা দিয়ে রেখেছি, বাকিটা আপনার ইচ্ছা।

আমুজামুর সেবাটি যেকোনো প্ল্যাটফর্ম থেকে পাওয়া যায়। মোবাইল নাকি পিসি ব্যবহার করেছেন সেটি কোনোই ব্যাপার না। আবার পৃথিবীর এ-প্রান্ত সে-প্রান্ত যেখানেই থাকুন না কেন, সমস্যা নেই।

ঘরে বসেই আপনি সবকিছু বুকিং করতে পারবেন। ঘরে বসেই আপনি সমগ্র প্ল্যানও তৈরি করতে পারবেন। এ ছাড়া আমুজামুর সবকিছু সহজ। এ ছাড়া প্রথমে বুকিং দিয়ে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বাতিল করার সুযোগও রয়েছে আমুজামুতে। এ ছাড়া বিশ্বমানের ট্যুরিস্ট গাইড, উন্নত মানের সেবা এবং আন্তর্জাতিক মানের সব ধরনের সুবিধা পাবেন আমুজামু থেকে। আমুজামুতে সবকিছু বুকিং করে আপনি থাকতে পারেন নিশ্চিন্ত। কারণ, বুকিং করার পর আমুজামু নিজ দায়িত্বে আপনাকে সবকিছু স্মরণ করিয়ে দেবে। সব মিলিয়ে সম্পূর্ণ বিশ্বমানের ডিজিটাল এবং থাইল্যান্ডে অধিক সহজ এবং সুন্দরভাবে ছুটির দিন কাটাতে আজই চলে যান আমুজামুর সাইটে। এক ক্লিকেই আপনি পেয়ে যাবেন সব সমাধান।

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

17 + twelve =