ডাবল চিন দূর করার সহজ ৫ ব্যায়াম

করেছে Sabiha Zaman

সাবিহা জামান: বেশ কিছুদিন ধরেই মন খারাপেরা ভিড় করছে হিমির মনে। আয়নার সামনে গেলে নিজের চোয়াল বা চিন নিয়েই চিন্তিত হচ্ছে হিমি। কারণ, তার এই মন খারাপের মূলে রয়েছে ‘ডাবল চিন’। হুট করে কিছু উটকো ঝামেলা আমাদের স্বাভাবিক সৌন্দর্যে বাধা দেয়। এই যেমন ডাবল চিন। হিমির মতো অনেকেই ডাবল চিনের সমস্যায় ভুগছে। মন খারাপ করার কিছু নেই। কিছু সহজ ব্যায়াম চালিয়ে গেলে ডাবল চিন দূর করতে পারবে সহজেই। মন খারাপ করে তো আর ডাবল চিন দূর করা সম্ভব নয়। এবারের রোদসীর আয়োজনের বিষয় ডাবল চিন দূর করার পাঁচটি সহজ ব্যায়াম।

ডাবল চিন
থুতনির নিচে অতিরিক্ত মেদ বা চর্বি জমে থাকা থেকেই সূত্রপাত হয় ডাবল চিনের, যার খাঁটি বাংলা অর্থ দাঁড়ায় জোড়া থুতনি। সাবমেন্টাল ফ্যাট বলা হয়ে থাকে এ ধরেনের চর্বিকে। তবে সুখবর হচ্ছে শুধু ওজন বৃদ্ধির সঙ্গে ডাবল চিনের সম্পর্ক নেই। অনেক সময় পরিবারের অন্য সদস্যদের ডাবল চিনের সমস্যা থাকলে তার প্রভাব পড়তে পারে তোমার মুখেও। অনেক সময় বয়সের প্রভাবে দেখা দেয় এই ডাবল চিন। এত ভেবো না, চিন্তা নেই। কিছু সহজ ঘরোয়া ব্যায়ামে মুক্তি মিলবে ডাবল চিন থেকে। এর সঙ্গে আনতে হবে স্বাস্থ্যকর ডায়েট।

ডাবল চিন দূর করার ব্যায়াম

চলো কিছু সহজ ব্যায়াম জেনে নেওয়া যাক, যেগুলো অনুশীলন করলে ডাবল চিন বিদায় নেবে। শুধু নিয়মিত এই ব্যায়ামগুলো করতে হবে।

চিনআপ
ডাবল চিন দূর করতে খুব কাজে দেয় এই ব্যায়াম। বাসায় বসে কিংবা বা দাঁড়িয়ে খুব সহজেই করা যায় এটা। প্রথমে মেরুদণ্ড সোজা রেখে দাঁড়াও অথবা বসো। ধীরগতিতে মাথা ক্রমশ পেছনের দিকে নিয়ে যেতে হবে। এ সময়ে চোখ থাকবে সিলিংয়ের দিকে। ঠোঁট দুটোকে গোল করে সামনের দিকে যতটা সম্ভব দিতে থাকো, যাতে করে তোমার চোয়াল যেন পুরোপুরি স্ট্রেচ করতে পারো।
১ থেকে ৫ গোনা পর্যন্ত গুনতে থাকো আর যেভাবে আছ সেভাবেই থাকো। আবার গুনতে শুরু করো ধীরে ধীরে সময় বাড়িয়ে করতে থাকো এই ব্যায়াম।

ব্লো এয়ার বা সিলিং কিস
প্রথমে মেরুদণ্ড সোজা করে বসো, সিধা রেখে সোজা হয়ে বসো। মাথাটা পেছনের দিকে নিয়ে গিয়ে সিলিংয়ের দিকে তাকাও। ঠোঁট দুটো সরু করে গাল ফুলিয়ে মুখের ভেতর থেকে বাতাস ছাড়তে থাকো ১০ সেকেন্ড সময় নিয়ে। চেষ্টা করো ব্লো এয়ার বা সিলিং কিস ব্যায়ামের রিপিটেশন চালিয়ে যেতে। প্রথম দিকে একটু কষ্ট হলেও সময়ের সঙ্গে ঠিক হয়ে যাবে। প্রতিদিন কমপক্ষে পাঁচবার এই ব্যায়ামের অভ্যাস করলে পরিবর্তন চোখে পড়বে।

নেক রোল
তোমার যদি নিয়মিত ব্যায়াম করার অভ্যাস থাকে, তবে তুমি নেক রোলের সঙ্গে বেশ পরিচিত। এই বিশেষ ব্যায়াম একই সঙ্গে চোয়াল, গলা, ঘাড়ের পেশিকে টোনআপ করতে সাহায্য করে। শুধু টাই নয়, এতে করে আমাদের কাঁধের পেশিগুলো রিল্যাক্স হয়। এ ব্যায়ামের জন্য তোমাকে মেরুদণ্ড সোজা রেখে মাথা ঘোরাতে থাকো, এক পাশের কাঁধের দিক থেকে তা যেন অন্য পাশের কাঁধের দিকে আসতে হবে। প্রথমে ঘড়ির কাঁটার দিকে রোল করবে, তারপর ঘড়ির কাঁটার বিপরীতে একইভাবে মাথা ঘোরাতে হবে। কমপক্ষে ১০ বার করতে হবে। তবে যদি শুরুতে কষ্ট হয়, তবে কমপক্ষে পাঁচবার করতে হবে। যেকোনো অবস্থায় বসেই তুমি এই ব্যায়াম করতে পারবে। তাই সুবিধা হচ্ছে যখন খুশি যেকোনো স্থানেই করতে পারবে এই ব্যায়াম।

জিভের ব্যায়াম
সোজা হয়ে বসে সামনের দিকে তাকাও। জিভ বের করে ওপরের দিক দিয়ে নাক স্পর্শ করার চেষ্টা চালিয়ে যাও। ৫ থেকে ১০ সেকেন্ড এ অবস্থায় থাকো। এরপর আবারও স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আবার চালিয়ে যাও এই ব্যায়াম। এটা খুব উপকারী একটি ব্যায়াম ডাবল চিন দূর করার জন্য।

টিল্ট হেড
প্রথমে সোজা হয়ে দাঁড়াতে হবে তোমাকে এই ব্যায়াম করার জন্য। পরবর্তী ধাপে মাথা ক্রমে পেছনের দিকে নিয়ে যাও, এ সময় গলা আর চিবুকের টানটান ভাব অনুভব করতে পারবে। আবার আগের পজিশনে ফিরে আসো। তবে কমপক্ষে ১০ সেকেন্ড এভাবেই থাকবে। নিয়ম মেনে চালিয়ে যাও এই ব্যায়াম। তখন ফারাক নিজেই স্পষ্ট লক্ষ করবে।

ছবি : সংগৃহীত

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

3 + 12 =