পোস্টপার্টাম ডিপ্রেশনঃ মাতৃত্ব যখন বিষাদময়

করেছে Shaila Hasan

শায়লা জাহান

প্রসব-পরবর্তী বিষণ্ণতা!! সে আবার কি জিনিস?? যত্তসব আদিখ্যেতা। আসলেই কি তাই?? লোকচক্ষুর অন্তরালে ঢেকে যাওয়া সদ্য মা হওয়া নারীর মানসিক সুস্থতা নিয়েই আজকের আয়োজন।

একটি নতুন প্রানের সঞ্চার, যাতে মিশে থাকে আবেগ, উত্তেজনা, আনন্দ। সাথে কিছুটা ভয় এবং উদ্বেগও। তবে এর সাথে বয়ে আসে কিছু অনাকাঙ্ক্ষিত বিষয়, যা কেউ কখনো আশা করতেও পারেনা; আর তা হল বিষন্নতা বা হতাশা। অধিকাংশ নতুন মায়েরাই বাচ্চা প্রসবের পর এই অধ্যায়ের মধ্য দিয়ে যায়, যাকে বলা হয় “পোস্টপার্টাম ডিপ্রেশন’’ বা “প্রসব পরবর্তী বিষন্নতা’’। শুনতে অবাক লাগলেও এই পরিস্থিতি পৃথিবীর প্রায় প্রতিটি নব্য মায়ের ক্ষেত্রেই হয়ে থাকে। শারীরিক, মানসিক এবং আচরণগত পরিবর্তনের জটিল সমন্বয় ঘটে এই পোস্টপার্টম ডিপ্রেশনে। বাচ্চা হওয়ার পর সাধারণত ৩-৫ দিনের পর এর লক্ষণগুলো পরিলক্ষিত হয়। প্রাথমিক পর্যায়ে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ১০-১৪ দিনের মধ্যে তা আবার ঠিক হয়ে যায়। কিন্তু এর লক্ষনগুলো সময়ের সাথে  যখন বাড়তে থাকে তখনই তা রুপ নেয় বিপদজনক অবস্থার।

পোস্টপার্টম ডিপ্রেশনের কারনঃ

১) সন্তানের জন্মের পর শরীরে বেশ কিছু হরমোনাল পরিবর্তন দেখা যায়, যা পোস্টপার্টম ডিপ্রেশন ঘটাতে পারে।

২) পরিবারের কারো এমন অতীতে বিষন্নতার ইতিহাস থাকলে

৩) অনাকাঙ্ক্ষিত বা অপরিকল্পিত গর্ভধারন হলে

৪) দীর্ঘস্থায়ী রোগ থাকলে

৫) পারিবারিক চাপ থাকলে

                                                               

সাধারন লক্ষনঃ

১) মুড সুইং হওয়া

২) ঘুম না হওয়া

৩) কাজে অনীহা

৩) ক্ষুধামন্দা

৪) মনোযোগ ব্যাহত হওয়া।

এগুলোকে সাধারন লক্ষন বলার কারন হলো কম-বেশি সবার ক্ষেত্রেই এসব পরিলক্ষিত হয়। কিন্তু এই ডিপ্রেশন যখন চরম পর্যায়ে চলে যায় অনেকসময় তাতে সুইসাইডের মত ঘটনাও ঘটে যায়।

প্রতিকারঃ

১) এইক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ভূমিকা পালন করবে পরিবার। বাচ্চা হওয়ার মানে শুধু  একটি নতুন প্রানের জন্ম নয় সাথে একটি নতুন মায়েরও জন্ম হওয়া। তাই নতুন বাচ্চার পাশাপাশি মায়েরও দরকার পর্যাপ্ত দেখাশোনার।

২) পর্যাপ্ত পরিমানে বিশ্রাম

৩) নিজেকে চাপমুক্ত রাখা

৪) পজেটিভ থাকা

৫) প্রয়োজনে ডাক্তারের সাথে কাউন্সেলিং করা

                                                                         

সকলেরই শারীরিক সুস্থতার পাশাপাশি মানসিক সুস্থতারও দরকার। আর এই প্রসব পরবর্তী বিষন্নতা ব্যাপারটির জন্য দরকার বেশি বেশি সচেতনতা। কারন একটি সুস্থ মা মানেই একটি সুস্থ সন্তান।

 

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

12 − 11 =