মিনতি মিশ্র বিলাতি

করেছে Rodoshee

মদের দোকান

রাহেল রাজিব

কবিতার মতো ক্যাপশন, কথাই কবিতা।
হু হু করে বেড়ে গেছে জল, বন্যাক্রান্ত মন
আলিপুর দুয়ারে এখন অপেক্ষার দিন
পকেট গড়ের মাঠ হলে, যেতে নেই
পরের পয়সা থাকতেই পারে, কিন্তু জলযোগ
একা নয় সমবেত বেশ তবে আদর্শে
চিন্তায় বিশ্বাসে কাজে পেশায় নেশায় মিল।
তবেই জমবে হিলকার্ট রোড, ডুয়ার্স কিংবা
ডুয়ার্স মাউন্টেইন হোটেলের সামনের রাস্তা।

টপ টি পার হলে থামতে হয়, সবাই নয়।
মিনতি মিশ্র শতবর্ষ আহ্বানে ডেকেছে-
এসো, জলযোগে মিলিত হয় চুম্বনে ঠোঁটে গ্লাসে
মিনতি মিশ্র বিলাতি মদের দোকান
কবিতার মতো ছন্দ লয়ে এক নির্মোহ আহ্বান।
নীল শাড়ি
নওশাদ জামিল

যেখান থেকে যাত্রা শুরু করি
আবার আমি সেখানে আসি ফিরে
অনেক পথ পেরিয়ে এসে দেখি
ফেরার পথে কুহক আছে ঘিরে।

পাহাড় নদী পেরিয়ে মেঠোপথ
এসেছি ফিরে হৃদয় আহ্লাদে
অন্ধ ফুলে পরাগ ঢেলে দিয়ে
আবেগ ছাড়া কে আর পড়ে ফাঁদে?

পথের বাঁকে বাতাস ছেঁড়া মেঘ
উড়ল বুঝি আগুন হাতছানি
ধোঁয়ার রেখা মাড়িয়ে বহুদূর
পেলাম দেখা পরম ঝলকানি।

হৃদয় টানে আবার আসি ফিরে
ফেরার পথে কুহক ছড়াছড়ি
কুয়াশাজাল ছিন্ন করে দেখি
পথের বাঁকে উড়ছে নীল শাড়ি।
আমি আছি
শামস্ আল্দীন

তোমাকে ঘিরে আর কিছু ভাবব না
এমনটাই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।
তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে শঙ্কাগ্রস্ত আছি
শুধু তুমিই কেন হবে সবকিছুর কারণ!
কিন্তু পারি না তোমায় না ভেবে থাকতে
অশান্ত ক্লিওপেট্রা তুমি তুমিতেই
যেন আচ্ছন্ন।

তোমার মুখাবয়ব ঘিরে ঘৃণাত্মক ভালোবাসার
অপেক্ষায় আমার দিন চলা
তবুও ভাবি ঘৃণার তুমি
আমাতেই স্থির হবে।
ভালোবাসবে জীবন সমুদ্রের চিরজাগরণ।
ফিরে এসো কিন্তু-

আমি আছি।

বিড়ালকাব্য
ইমরান মাহফুজ

বিজ্ঞানে পড়েছো জানলাম।
নিউটনের তৃতীয় সূত্রটি বেশ-
রপ্ত আছে তোমার!
একদা আমিও মনোযোগে
সূত্রটি পড়ে তসবিহ্র মতো জপতাম।
অনুভবে চারপাশ মেলানোর
চেষ্টায় দুপুর সন্ধ্যা রাত!
ভাবনায় সমান ক্রিয়া বিক্রিয়া…

গতকাল দেখলাম বিড়াল
বুকে নিয়ে ছবি পোস্ট করেছে
আয়েশি ভঙ্গিতে।
দেখেই ভাবনায় দোল খাচ্ছে-
এই তো সেদিন তার মতোই
প্রিয় হয়ে বুকে ছিলাম।
কিন্তু সম্পর্কের ছুটিতে কী যে
হিংস্র হয়ে উঠেছিলে-
কাকে বলি!

ভাবছ একবার- বিড়ালটি
হিংস্র হলে তৃতীয় সূত্রের
প্রয়োগে
বুকের অবস্থা কী হবে!

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

4 × three =