মুখের গড়ন অনুযায়ী হেয়ার কাট

করেছে Shaila Hasan

শায়লা জাহানঃ

 

সাজগোছের মাধ্যমে যেমন পুরো চেহারা পাল্টে যেতে পারে, তেমনি চুলের কাটিং এর মাধ্যমেও পুরো লুক চেঞ্জ হয়ে যেতে পারে। চুল নিয়ে অবশ্য আমাদের মাঝে চুলচেরা বিশ্লেষণের শেষ নেই। বিভিন্ন ধরনের চুলের কাটিং নিয়েও চলে নিরীক্ষা। কিন্তু সব কাটিং যে সবার সাথে মানানসই হবে তা কিন্তু নয়। এই ক্ষেত্রে মুখের গড়ন অনেকটা নির্ভর করে। তাই মুখের শেপের সাথে কোন কাটিং মানানসই হবে তার একটা ধারনা দেয়া হয়েছে এখানে।

নতুন, ট্রেন্ডি কোন হেয়ার কাটের জন্য চুলের উপর কাঁচি চালানোর আগে, মুখের আকৃতি বিবেচনা করা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলোর মধ্যে একটি। দেখা গেলো সবচেয়ে সুন্দর নতুন একটি কাট তুমি বেছে নিয়েছো, কিন্তু যদি এটি তোমার মুখের শেপের সাথে কাজ না করে, তবে এর চেয়ে দুঃস্বপ্নের মত আর কিছুই হবেনা। মুখের আকৃতি আয়তক্ষেত্র, ডিম্বাকৃতি, বর্গাকার, বৃত্ত, ত্রিভূজ, হার্ট বা ডায়মন্ড যে কোন আকৃতির হোক না কেন, সঠিক হেয়ার কাটটি যখন চেহারার ফিচারের সাথে দক্ষতার সাথে মিলে যাবে এর চেয়ে বড় প্রাপ্তি আর কি হতে পারে। এখন প্রশ্ন হলো আমার মুখের গড়ন কি তা কিভাবে সনাক্ত করবো? এটি খুবই সহজ। প্রথমে সমস্ত চুল বেঁধে নিয়ে ক্যামেরার সামনে দাঁড়াতে হবে। নিজের একটি ছবি তোলার চেষ্টা করো। তারপর মুখের বাইরের চারপাশে ট্রেস করে দেখো কোন আকৃতিটি সবচেয়ে ঘনিষ্ঠভাবে সাদৃশ্যপূর্ণ। বিকল্পভাবে, তোমার মুখ পরিমাপ করার চেষ্টা করতে পারো। ভ্রু, গালের হাড়, চোয়ালের প্রস্থ এবং কপাল থেকে চিবুক পর্যন্ত মুখের দৈর্ঘ্যের উপর ফোকাস করে এর অনুপাত বের করা যেতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, যদি তোমার মুখের দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থ একই হয় তবে তা সম্ভবত বর্গাকার বা গোলাকার। আবার যদি মুখ কপাল থেকে চোয়াল পর্যন্ত চওড়া হয়ে যায়, তাহলে তা একটি ত্রিভূজ আকৃতি। এভাবেই মুখের গড়ন বের করতে পারলে তার সাথে মানানসই কোন হেয়ার কাট যাবে তা সহজেই খুঁজে নেয়া সম্ভব।

ওভাল বা ডিম্বাকৃতি ফেস শেপ

যাদের মুখের আকৃতি ওভাল শেপের তারা নিজেদের লাকি ভাবতেই পারো। ওভালকে সবচেয়ে আদর্শ মুখের আকার হিসেবে বিবেচনা করা হয় কারন বেশিরভাগ চুলের স্টাইল ডিম্বাকৃতির মুখের সাথেই যায়। লং অথবা শর্ট যেকোন হেয়ার স্টাইল করা যেতে পারে। এই মুখের অধিকারীরা যদি শর্ট হেয়ার পছন্দ করে, তবে বব হেয়ার কাট বেশ আকর্ষনীয় দেখাবে। আর যদি লম্বা চুল পছন্দ করে, তবে ভলিউম লেয়ার, স্ট্রেইট ভলিউম লেয়ার এবং ওয়েভি বা কার্ল করে পাশে ঝুলিয়ে দেয়া যেতে পারে। যেহেতু মোটামোটি সব কাটই এতে যায়, সেজন্য তোমার চুলের কাটিঙয়ের জন্য হেয়ার এক্সপার্টদের গাইড নিতে পারো।

রাউন্ড বা গোলাকার ফেস শেপ

গোলাকার মুখের আকারগুলো সাধারণত একই দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থের পাশাপাশি বিশিষ্ট, গোলাকার গালগুলোকে ফোকাস করে। এজন্য গোলাকারতা ভেঙ্গে মুখের আকৃতি লম্বা করতে লম্বা লেয়ারযুক্ত কাট এবং চপি পিক্সি কাট সবচেয়ে ভালো দেখায়। লেয়ার কাট বেছে নিলে, চোয়ালের চারপাশ থেকে শুরু হওয়া লম্বা লেয়ারের স্তর করলে ভালো দেখাবে। এই গড়নের অধিকারীরা কি এড়িয়ে যাবে? ছোট লেয়ার সহ বব এই ধরনের কাটিং না করাই ভালো।

আয়তক্ষেত্রাকার ফেস শেপ

এই ধরনের ফেস যাদের তাদের শার্প চোয়াল এবং কপালের চেহারা আরও লম্বা না করে সফট করার জন্য কাজ করা উচিৎ। উদাহরণস্বরূপ, একটি সফট লেয়ার কাট চিকবোনসকে আরও উন্নত করতে পারে। যাইহোক, লং হেয়ার কাট এক্ষেত্রে বাদ দিতে হবে, যা শুধুমাত্র তোমার চেহারাকে আরও লম্বাই দেখাবে। আর যদি লং লেন্থ বেছে নিতেই হয় তবে ব্লোআউট, ওয়েভ বা কার্ল দিয়ে স্টাইল করার চেষ্টা করো।

স্কয়ার বা বর্গাকার ফেস শেপ

বর্গাকার মুখের আকৃতির অধিকারীর মূল লক্ষ্য হল মুখ লম্বা করা। কপাল উন্মুক্ত করে এমন চুল কাটা এড়িয়ে যেতে হবে। শর্ট যে কোন ধরনের কাটে এই মুখ আর বেশি চওড়া দেখায়। লেয়ার কাট দেয়া যেতে পারে তবে তা অবশ্যই হতে হবে লং লেয়ার। ব্লান্ট কাট এবং ব্যাঙস লেয়ারও বেশ ভালো মানাবে।

ডায়মন্ড ফেস শেপ

ডায়মন্ড হলো একটি কৌণিক মুখের আকৃতি যা মুখের প্রশস্ত বিন্দুতে গালের হাড় সহ একটি সরু কপাল এবং চোয়ালের রেখা বৈশিষ্ট্য ধারণ করে। এদের ক্ষেত্রে সঠিক হেয়ার কাট নির্বাচন করা বেশ কঠিন। খুব লম্বা বা খুব শর্ট ধরনের কাট একদমই মানায় না। এক্ষেত্রে কিছুটা মাঝারি ধরনের কাট নির্বাচন করলে ভালো। কাঁধ পর্যন্ত সাধারন ব্যাঙস কাট দেয়াই ভালো। হুইস্পি ব্যাঙস ও ব্লান্ট কাটও বেশ মানাবে।

হার্ট ফেস শেপ

মুখের আকৃতি যদি হার্ট শেপের হয়, তবে চোখ এবং গালের হাড়ের দিকে ফোকাস করো। ব্যাংস হল কপালের প্রস্থকে ক্যামোফ্লেজ করার একটি দূর্দান্ত উপায় এবং তা আপনার পছন্দের যেকোন দৈর্ঘ্যের সাথে করা যেতে পারে। এছাড়াও, পিক্সি কাট, কাঁধ পর্যন্ত চুলে লেয়ার কাট ও কান পর্যন্ত বব কাট চুলে বেশ মানায়।

-ছবি সংগৃহীত

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

17 − 14 =