মেতো ওঠো বাঙালিয়ানার উৎসবে!

করেছে Rodoshee

এই তো সেদিন, আত্মঘাতী হলো তাসমিয়া শান্তা। কতই আর বয়স হবে মেয়েটার। উনিশ কি কুড়ি। এই বয়সী একটা মেয়ের মনে এমন কী দুঃখ বেঁধে বসল যে, তাকে আত্মঘাতী হতে হলো? চমৎকার কবিতা লিখত মেয়েটা। শান্তা লিখেছিল, ‘জীবন যেখানে দ্রোহের প্রতিশব্দ, মৃত্যুই সেখানে শেষ কথা। অজানা গন্তব্যের কেউ চিরস্থায়ী সাথি হয় না, যা হয় তা হলো ক্ষণস্থায়ী, মাঝপথে গিয়ে হাত ছেড়ে দেয়। জীবনের কণ্টকাকীর্ণ পথগুলো নিতান্তই একার জন্য।’

এ ঘটনার কিছুদিন আগে আমাদের রিক্ত করেছে আরও দুজন তরুণী- সাবরিনা আর ডিভা জ্যাকুলিন মিথিলা। ফেসবুকে এরা বেশ সরব ছিল। রীতিমতো তারকাখ্যাতি। একজন তো ফেসবুক লাইভে এসে নিজেকে শেষ করেছে। অন্যজনও প্রায় সে পথেই। হয়তো ভাবছো, হঠাৎ আত্মহত্যা নিয়ে এত কথা কেন? কারণটা সোশ্যাল মিডিয়া। আমাদের দেশেই এখন প্রায় ছয় কোটি ইন্টারনেট ব্যবহারকারী। ব্যাপারটি ইতিবাচক হলেও আশঙ্কার কথা হলো, এদের অধিকাংশই তরুণ এবং এদের অনেকেই বুঝতে পারে না কীভাবে ইন্টারনেট ব্যবহারের সুফল নিতে হয়। গবেষণা বলছে, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং যুগ আসার পর আত্মহত্যার হার বহুগুণে বেড়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। প্রতিবছর প্রায় ৩২ হাজার তরুণ সুইসাইড করছে সেখানে। প্রতিদিন প্রায় ৮৯ জন। এর মধ্যে ৯৭ শতাংশ হচ্ছে ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সী ইন্টারনেট ব্যবহারকারী। ৮০ শতাংশ হচ্ছে প্রথম মোবাইল বা সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ব্যবহারকারী। তার মানে এটি সুস্পষ্ট যে, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং আত্মহত্যার হার বাড়াচ্ছে। তরুণদের হতাশা বাড়াচ্ছে। আর সেটারই প্রতিফলন ঘটেছে বাংলাদেশে। শুধু একটু সচেতন হলেই এই ঝরে যাওয়া সুন্দর প্রাণগুলো ধরে রাখা সম্ভব। সম্ভব নতুন নতুন প্রজ্বল ইতিহাস সৃষ্টি। এদের একটু ভালোবাসা দিয়ে বলা দরকার, ‘মরো না। আমরা ভালোবাসি তোমাকে!’

বৈশাখ আসছে সাড়ম্বরে। বাঙালিয়ানার সেরা উৎসব পালনের প্রস্তুতি এখন ঘরে ঘরে। বাঙালিত্ব জাহির করবার মতো এত সুন্দর আয়োজন আর প্লাটফর্ম দ্বিতীয়টি নেই। আমরা স্বাগত জানাচ্ছি বৈশাখকে। তোমাদের হাতে তুলে দিচ্ছি ‘রোদসী’র পূর্ণাঙ্গ বৈশাখী সংখ্যা। থাকছে বৈশাখের খুঁটিনাটি সব আয়োজন। আসলে বৈশাখ মানেই তো শপিংয়ের পুরোদস্তুর মৌসুম। উৎসব ঘিরে কেনাকাটার পালে আবারও বাতাস বইছে। এসব দিনে কাউকে নতুন কিছু উপহার দেবার আনন্দই অন্য রকম। তৃপ্তির অনুভবে ভরে ওঠে মন। তাহলে আর দেরি কেন, মেতো ওঠো বাঙালিয়ানার উৎসবে!

উৎসব সুন্দর হোক। সবাইকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা।

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

eight + nineteen =