যত্নে থাকুক আসবাব

করেছে Tania Akter

রোদসী ডেস্ক

সৌন্দর্যেই হোক কিংবা প্রয়োজনে প্রতিটা ঘরের প্রাণ হলো আসবাবপত্র। অবহেলা আর অনাদরে না রেখে আসবাবপত্রের যত্ন নিতে হবে। তবেই ভালো থাকবে আসবাবপত্র। টিকবে বহুদিন।

 

ধুলোমুক্ত রাখতে হবে
ধুলোর আস্তরনে আসবাবপত্র রেখে দেয়া যাবে না। কারণ ধুলোয় জমে থাকা ব্যাকটেরিয়া আসবাবপত্রের গুনাগুন নষ্ট করে দিতে পারে। এছাড়াও আসবাবপত্র যদি কাঠের হয় তাহলে এর পলিশ মলিন হয়ে যেতে পারে। তাই নরম সুতি কাপড় শুকনো রেখেই ধুলো মুছতে হবে নিয়মিত।

রোদ থেকে দূরে
সরাসরি সূর্যের আলো আসবাবপত্রের রং খুব দ্রুত জ্বালিয়ে দেয়। কাঠের আসবাবপত্র হলে রোদের তাপে ফেটেও যেতে পারে। তাই জানালার পাশের আসবাবপত্র আলো থেকে দুরে রাখতে ভারী পর্দা দেয়া যেতে পারে। আর অপ্রয়োজনে জানালা বন্ধ রাখতে হবে।

পানির ব্যবহার বর্জন
আসবাবপত্রে পানি লেগে থাকলে নষ্ট হয়ে যাওয়ার পরিমান অনেক বেশি। খাওয়া দাওয়া কিংবা মোছার সময় পানির ব্যবহার এড়িয়ে যেতে হবে। সুতির নরম কাপড় নিয়ে আলতো করে ঘষে ঘষে আসবাবপত্রে লেগে থাকা ময়লা তুলে নিতে হবে। পানির গ্লাস কিংবা ঠান্ডা পানির বোতল বা বরফ জাতীয় কোনও পদার্থ আসবাবপত্রের উপর সরাসরি না রেখে ট্রে ব্যবহার করতে হবে।

পোকার উপদ্রব থেকে দূরে
পোকা মাকাড়ের উপদ্রব থেকে আসবাবপত্র থেকে দূরে রাখতে হবে। নিমের তেল স্প্রে করে ভালো রাখা যায়। আর কিছুদিন পর পর খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে দেখতে হবে পোকার আক্রমন হচ্ছে কিনা। যদি কোন আসবাবপত্রে পোকার আক্রমন বেশি হয় তবে সেটি সরিয়ে রেখে দিতে হবে। তা না হলে অন্য ভালো আসবাবপত্রে ছড়িয়ে যাবার আশঙ্কা রয়েছে।

দাগ তোলার উপায়
চায়ের, সফট ড্রিঙ্কের, টুথপেস্টের কিংবা খাবারের দাগ আসবাবপত্রে পড়ার পরই একটা নরম সুতি কাপড় দিয়ে ঘষে ঘষে দাগটা তুলে দিতে হবে। আর কঠিন কোন দাগ হলে এক টেবিলচামচ বেকিং সোডা আর পানির মিশ্রন দাগের উপর লাগিয়ে মুছে ফেলতে হবে। প্রথমে সুতি কাপড় একটু ভিজিয়ে ভালো করে নিঙড়ে নিয়ে আলতো করে মুছতে হবে। তারপর শুকনো কাপড়ে সেই ভেজা অংশটি ভালোভাবে মুছে নিতে হবে যাতে ভেজা না থাকে।

পলিশ হোক ঘরেই
কাঠের আসবাবপত্র নতুন রাখতে কিংবা নতুনের মতো দেখাতে প্রতি ৩ থেকে ৬ মাস পর পর পলিশ করা যেতে পারে। ঘরেই তৈরি করা যায় সেই উপাদান। এককাপ আলিভ অয়েল আর এককাপ সাদা ভিনেগার একসঙ্গে মিশিয়ে নিতে হবে। প্রথমে আসবাবপত্র পরিষ্কার করে নিতে হবে। তারপর মিশ্রনটি নরম কাপড়ে ঢেলে লাগিয়ে নিতে হবে। তাহলেই আসবাবপত্র ঝকঝকে থাকবে বহুদিন। এছাড়া প্রতি তিনমাস পর পর মোম এবং তেল দিয়ে মুছে নিলে যেমন আকর্ষণীয় দেখাবে তেমনি দীর্ঘস্থায়ী হবে।

পরামর্শ
কখনোই ভাঙ্গা আসবাবপত্র অবহেলায় ফেলে রাখা ঠিক না। তাহলে ঘটে যেতে পারে দুর্ঘটনা। যখনই কোন আসবাবপত্র ক্ষতিগ্রস্থ হবে সাথে সাথেই ঠিক করে নিতে হবে।
ছবি: ইন্টারনেট

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

5 × one =