স্নিকার পায়ে বিয়ের কনে

করেছে Shaila Hasan

শায়লা জাহানঃ

বিয়ের মতো এমন স্পেশাল দিনে বর-কনের সাজ পোশাকও হওয়া চাই স্পেশাল। অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা নবদম্পতি আড়ম্বরপূর্ণ চেহারায় নিজেদের উপস্থাপন করে থাকে। কিন্তু সময়ের পালাবদলের সাথে এসেছে ব্যাপক পরিবর্তন। সাজ পোশাকের ক্ষেত্রে যেমন ঐতিহ্যগত ধারণা পাল্টে গেছে তেমনি পদযুগলে ফ্যান্সি হিলের পরিবর্তে ঠাই পাচ্ছে স্নিকারের। যা বর্তমানে ফ্যাশন ট্রেন্ডে পরিণত হয়েছে।  

বলি-অভিনেতা রাজকুমার রাও যখন পত্রলেখাকে হাঁটু গেড়ে আঙটি পরিয়ে দিয়েছিলো তখন নেট দুনিয়ায় তাদের বিয়ে নিয়ে যতটা না চর্চিত হয়েছিলো, তার বেশি সাড়া ফেলেছিলো সাদা আউটফিটের সাথে পত্রলেখার পায়ের স্নিকার নিয়ে। অন্যদিকে ফ্যাশন ডিভা হিসেবে খ্যাত সোনম কাপুরের রিসিপশন পার্টিতে তার বোন রিয়া কাপুর এবং বর আনন্দ আহুজা জাঁকজমক পোশাকের সাথে হাজির হয়েছিলেন স্নিকার পায়ে দিয়ে। এবার আমাদের দেশের দিকে একটু তাকানো যাক। মাসখানেক আগেই হয়ে গেলো গায়ক প্রীতম ও অভিনেত্রী শেহতাজের বিয়ের অনুষ্ঠান। শ্রীমঙ্গলের মনোরম পরিবেশে কনের বেশে শেহতাজকে দেখা যায় ঝলমলে গোলাপি লেহেঙ্গায়, পায়ে গলানো ছিল স্নিকার। সেলিব্রেটি থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ, সকলের কাছেই আধুনিক যুগে দাঁড়িয়ে ফ্যাশনে সবচেয়ে বেশি যে জিনিসের প্রাধান্য পাচ্ছে তা হল ‘কমফোর্ট’। যেটাতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ পাওয়া যাচ্ছে তাই ট্রেন্ড হয়ে দাঁড়াচ্ছে। সাজ-পোশাকের ক্ষেত্রে প্রাকৃতিক এবং নূন্যতম দেখার পাশাপাশি ফুটওয়্যারে লক্ষ্যণীয় এমন পছন্দ ব্রাইডাল জগতে নিঃসন্দেহে এক নতুন মাত্রা তৈরি করেছে। বরের সাথে আগে থেকেই স্নিকারের যোগসূত্র থাকলেও, কনের পায়ে এর নতুন সংযোজন দেখা যাচ্ছে।

স্নিকার এখন কেবল জিনস আর টি-শার্টে আর আবদ্ধ নেই, অনায়াসে বিয়ের পোশাকের সঙ্গীও হয়ে উঠেছে। পশ্চিমা বিশ্বে বিয়েতে সাদা গাউনের সাথে পায়ে স্নিকার পরার চল তেমন নতুন কিছু নয়। এমন অনেক আন্তর্জাতিক খেলোয়াড় রয়েছেন যারা তাদের বিশেষ দিনেও বিয়ের সাজ পোশাকের সাথে সঙ্গী হিসেবে বেছে নিয়েছেন স্নিকারকেই। বিয়ের পোশাক তা হোক গাউন, লেহেঙ্গা কিংবা শাড়ি- পোশাক ও নিজের স্বাচ্ছন্দ্য এবং রুচির সাথে তাল মিলিয়ে বৈচিত্র্যময় সব স্নিকার বেছে নেয়ার অপশন রয়েছে। বিয়ের দিনে তোমার সাজপোশাকে চকচকে একটি স্প্ল্যাশ যোগ করতে চাও? এক্ষেত্রে বেছে নিতে পারো গ্লিটারি বা পার্ল ওয়েডিং স্নিকার। ক্ল্যাসি লুক চাও? সেক্ষেত্রে লেস যুক্ত স্নিকার নাও। অথবা যদি একদমই ইউনিক কিছু চাও, তবে নিজের ব্যক্তিগত পছন্দ অনুযায়ী কাস্টমাইজ করেও নিতে পারো। নকশার বৈচিত্র্যতার পাশাপাশি নানা রঙের মিশেলও পাবে। মেয়েদের জন্য সাদার পাশাপাশি গোলাপি, লাল ইত্যাদি রঙের প্রাধান্যও রয়েছে।

পারফেক্ট জুতা জোড়া নির্বাচন করার সময় কিছু বিষয় আছে যেমন; টেকসই উপকরণ,সাপোর্ট এবং আরামদায়কতা- এগুলো অবশ্যই বিবেচনা করে রাখবে। বিয়ের ভেন্যু বা লোকেশানও এক্ষেত্রে মাথায় রাখবে। সেখানকার পরিবেশ সবকিছুর উপর বিবেচনা করে নিজের জন্য বেস্টটি নির্বাচন করে নাও।

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

6 + one =