হালকা শীতে জ্যাকেট নয় ‘শ্যাকেট’

করেছে Tania Akter

রোদসী ডেস্ক

নগরজীবনে শীতের কাঁপুনি নেই বললেই চলে। হালকা হিম হাওয়ায় গায়ে ভারী পোশাক জড়িয়ে নিতে মন চায় না। কারণ ভারী শীত পোশাক এই সময়ে বেশ অস্বস্তি নিয়ে আসে। তাই এই ঠান্ডা এই গরম এমন আবহাওয়ার বিষয়টি মাথায় নিয়ে হালের ফ্যাশনে যোগ হয়েছে শার্ট ও জ্যাকেটের মাঝামাঝি হালকা ওজনের পোশাক ‘শ্যাকেট’।

 

শ্যাকেটের ধরণ
শীত এলেই ফার্নেল শার্ট খোঁজে অনেকেই। এই ফার্নেল শার্ট দিয়েই এই শ্যাকেট বানানো হয়। সব বয়সীদের সাথেই মানিয়ে যায় এই শ্যাকেট। উৎসব কিংবা ক্যাজুয়াল আউটফিট হিসেবেই মানানসই। কারণ চামড়াজাত লেদার, পাতলা উল ও ডেনিম ফেব্রিকের উপাদানে তৈরি হয় এই শ্যাকেট। লং শ্যাকেট, শর্ট শ্যাকেট, বেল্ট বা ফিতা দেয়া একরঙা বা বাহারি রঙের শ্যাকেট রয়েছে।

শর্ট শ্যাকেট
শর্ট শ্যাকেট এনে দেবে স্টাইলিস লুক। মানিয়ে যাবে যেকোনো ধরনের টপস, টি শার্ট বা স্কার্টের সঙ্গে। চাইলে শাড়ীর সঙ্গে ব্লাউজ হিসেবেও পরা যায়। পায়ে পরে নেয়া যেতে পারে লেদারের লং বুট

লং শ্যাকেট
লং শ্যাকেট ছেড়ে কিংবা কোমড়ের কাছে গুটিয়েও নেয়া যায়। চাই বেল্ট দিয়ে আটকেও দেয়া যায়। টপসের ওপর জড়িয়ে নিতে পারেন লম্বা শ্যাকেট। জিনস বা বিভিন্ন প্যান্টের সঙ্গেও বেশ মানানসই লম্বা শ্যাকেট।

ফিতাওয়ালা শ্যাকেট
শ্যাকেটে মোটা ফিতা জুড়ে দিলে অথবা বেল্টে কোমড় জড়িয়ে নিলে বেশ ফ্যাশনেবল দেখাবে। এর সাথে ফিটিং জিনস বা লেগিংস মানিয়ে যায় অনায়াসেই।

ফ্যাশনে শ্যাকেটের বাহারি ব্যবহার হচ্ছে। প্লেড প্রিন্ট ও ওভারসাইজড শ্যাকেট রয়েছে। লেয়ার করে পড়লে অর্থ্যাৎ একটা উপর আরেকটা কাপড় জড়িয়ে নিয়ে শ্যাকেট পড়লে শীতে আরামের পাশাপাশি স্টাইলিস লুক পাওয়া যাবে। তাই হালকা শীতে অনন্য ফ্যাশন হতে পারে এই শ্যাকেট।

ছবি: ইন্টারনেট

 

 

 

 

 

 

০ মন্তব্য করো
0

You may also like

তোমার মন্তব্য লেখো

three × three =